iQOO 12 LAUNCHED IN INDIA WITH SNAPDRAGON 8 GEN 3!!

iqoo 12

iQOO Launched thier fastest phone : iQOO 12 with Snapdragon 8 Gen 3 processor:-

 

iQOO launch করলো তাদের brand new phone iQOO 12। Xiaomi, Oneplus এবং অন্যান্য company কে পিছনে ফেলে দিয়ে iQOO launch করলো ভারতের প্রথম ফোন যাতে Qualcomm Snapdragon 8 Gen 3 chipset আছে। কিন্তু Snapdragon 8 Gen 3 হলেও এই ফোনের starting price হলো 50,000 টাকা

এই স্মার্টফোনটি আসন্ন ফ্ল্যাগশিপ ফোনগুলি যেমন OnePlus 12 এবং Xiaomi 14 এর সাথের সাথে প্রতিযোগিতা করবে, যে দুটিই আগামী সপ্তাহে ভারতে launch হবে বলে আশা করা হচ্ছে । iQOO এই ফোনটি দুটি colour এ launch করেছে – Legend এবং Alpha। Alpha colour আসলে হলো matte black colour আর Legend হলো Milky white colour। আগের iQOO 11 এর মতন এই iQOO 12 এ আমরা ওই BMW Motorsports এর লম্বা stripes দেখতে পাবো না ।

iQOO 12 LAUNCH EVENT:-

12ই ডিসেম্বর বিকেল 4টে নাগাদ শুরু হয় এই launch event। Launch event এর অন্যতম আকর্ষণীয় event ছিল SouL এর সাথে iQOO এর collab। SouL হলো একটি জনপ্রিয় eSports organisation যাদের প্রায় 2 লাখ 70 হাজারের বেশি follower আছে Instgram এ। এদের BGMI Lineup এর Jersey sponsor করবে iQOO। এই contract প্রথমবারের মতো 6 মাসের জন্য হয়েছে। iQOO এই প্রথমবার কোনো eSports team এর jersey তে sponsor করবে। SouL এর co-owner দের মধ্যে একজন Animesh ‘Thug’ Agarwal এই event এ আসেন এবং এই collab এর ঘোষণা করেন ।

এছাড়াও এই launch event এ আরেকটি বিষয় iQOO তুলে ধরে যে, iQOO, 2023 সালে যেকটি ফোন launch করেছে, সবকটি ফোনই 4-star এর ওপর rating পেয়েছে।

এমন কি আছে এই ফোনটির মধ্যে যেটি একে তার প্রতিযোগী দের তুলনায় এক ধাপ উর্দ্ধে রাখছে। চলুন দেখা যাক।

iQOO 12 SPECIFICATIONS: –

DESIGN : এবারে iQOO 12 এ আমরা glass built back panel দেখতে পাই আমরা যেখানে iQOO 11 এ আমরা আগেরবার vegan leather finish দেখতে পেয়েছিলাম। তার সাথে, এবারে BMW Motosports এর collab এর যে stripes গুলো আছে সেগুলো ও এবারে ছোট হয়ে গেছে। iQOO 12 এর এই stripes ফোন এর fast performance কে indicate করে

আগেরবারের ফোনের ক্যামেরা setup এর মত এই ফোনের ক্যামেরা setup নয়। একটি squarish ক্যামেরা setup দেখতে পাই যার edge গুলো rounded shape এর, যা একটি মসৃণ এবং আধুনিক look দেয়। এই ক্যামেরা module টি অনেকটা unique এবং এর চারপাশে একটি ring shape texture ও দেখতে পাই, যার জন্য এটি একটি fresh design মনে হয় । এই ক্যামেরা module portholes থেকে inspired, portholes হলো একটি গোলাকার জানালা যা জাহাজের হালে ব্যবহার করা হয় আলো এবং বাতাস পাশ করার জন্য ।

এই ফোনের ওজন হলো প্রায় 203 গ্রাম এবং এই ফোনের dimension হলো 163.2×75.9×8.1 mm। এই ফোনের smooth glass finish legend এবং alpha দুটো colour এই premium অনুভব হয়। এই ফোনের side frame হলো metal built। এই একটি flat frame যার corner গুলো হলো rounded। পিছনের glass back shiny হলেও এতে আমরা কোনো fingerprint দেখতে পাই না। কিন্তু এই ফোনে খুব slippery, তো এতে back cover পরিয়ে ব্যবহার করাই ভালো হয়ে ।

iQOO 12 আসে IP 64 rating water এবং dust protection এর সাথে, এই ফোন কিন্তু সম্পূর্ণ waterproof নয়। এই ফোন হাতে ধরলে বেশ বড় মনে হবে, যা Gamer দের জন্য ভালো size হলেও যারা Pixel 7a বা iPhone 15 এর মত compact ফোন পছন্দ করেন তাদের ভালো নাও লাগতে পারে। iQOO তাদের launch event এ mention না করলেও এই ফোনে আমরা Schott Xensation upgraded এর protection পাই।

Overall design বেশ ভালো লাগলেও এই ফোনের design অনেকটা Xiaomi 13 pro এর কথা মনে করিয়ে দেয়।

PORTS and BUTTONS: এই ফোনের মাথায় আমরা IR Blaster এবং secondary speaker grill দেখতে পাই , নিচে dual 5g sim slot, primary speaker grill এবং USB 2.0 port দেখতে পাই । কিন্তু আজকাল আমরা প্রত্যেক flagship ফোনে USB 3.0 দেখতে পাই। বামদিকে আমরা কিছু দেখতে পাইনা এবং ডানদিকে আমরা একটি power button এবং volume up-down button দেখতে পাই।

DISPLAY : iQOO 12 এ আমরা 6.78 ইঞ্চির flat LTPO Amoled display দেখতে পাই। যার resolution হলো 1.5k, যেখানে iQOO 11 এ আমরা 2K এর দেখতে পেয়েছিলাম। এতে 144hz এর dynamic refresh rate আছে, যেখানে gaming এর সময় frame interpolation on করলে 144hz পাওয়া যাবে এবং normal work এ 1hz-120hz refresh rate পাওয়া যায়।

এই display তে HDR10+ এর support দেখতে পাই, তার সাথে এতে 3000 nits এর peak brightness দেখতে পাই। এই ফোনের display হলো OnePlus Open এর পর সবথেকে brightest display। এই ফোনে আমরা একদমই কম bezel দেখতে পাই, touch sensivity ও খুব ভালো একদম হালকা touch এ ফোন response করে। এই ফোনে আমরা PWM dimming এর support দেখতে পাই যা আমাদের রাতেরবেলা ফোন ব্যবহারের সময় চোখকে অল্প হলেও সুরক্ষিত রাখে। এতে আমরা in-display fingerprint scanner দেখতে পাই যা খুব ই fast response করে

iQOO দাবি করেছিল এই display তে wet hand technology থাকবে, যা হলো তোমার হাতে ঘাম বা জল থাকলেও screen এ touch response হবে, কিন্তু এটি পুরোপুরি ভাবে কাজ করেনা।

BATTERY : এই iQOO 12 ফোনে আমরা 5000 mah এর battery দেখতে পাই , এবং box এ আমরা 120W এর charger ও পেয়ে যাবো, যা আমাদের ফোনকে মাত্র 26-27 মিনিটে 100% চার্জ করে দেবে।

SOFTWARE : iQOO 12 ফোনে আমরা latest Android 14 পেয়ে যাই এবং latest Funtouch OS 14 ও পাই। iQOO 12 হলো প্রথম ফোন যাতে আমরা pre-installed Funtouch OS 14 UI পেয়ে যাবো আর এটি হলো Google Pixel 8 এর পর প্রথম ফোন যাতে আমরা Android 14 pre-installed পেয়ে যাবো। এই ফোনে আমরা 3 বছরের Android Upgrade এবং 4 বছরের security update দেখতে পাবো।

যদি আমরা আগের version এর সাথে তুলনা করি, এতে আমরা side bar দেখতে পাবো, কিছু changes split screen option এও পাবো, এবং এখন চাইলে আমরা একটি home screen shortcut ও তৈরি করতে পারবো, যেখানে দুটো application split screen এ থাকবে। চাইলে আমরা lock screen কেও customise করতে পারবো

এবারে আমরা কোনো hot games বা hot apps পাবোনা menu screen এ। 3-4 তে bloatware apps যেমন Facebook, Netflix, Snapchat থাকলেও আমরা চাইলেই এইগুলো uninstall করে দিতে পারি। এবং আরেকটি খুব ভালো বিষয় যে এতে আমরা iQOO dialler দেখতে পাই যেটায় কোনো বিজ্ঞপ্তি ছাড়াই আমরা call recording করতে পারবো।

CAMERA : আমরা সবাই জানি iQOO সবসময় performance side কে বেশি পছন্দ করে। কিন্তু এবারে iQOO সেই ভুল করেনি। iQOO 12 হলো এমন একটি device যেটা শুধু gamer রা নয় সাধারণ ব্যবহারকারী রাও কিনতে পারবে।

এই ফোনে আমরা triple camera setup দেখতে পাই; 50MP এর main ক্যামেরা যেটায় আমরা OIS এর support ও দেখতে পাই, 50MP এর ultrawide ক্যামেরা এবং 64MP এর 3x telephoto ক্যামেরা (এতেও OIS এর support আছে) । এটি হলো ভারতের প্রথম ফোন যেখানে এরকম একটি ক্যামেরা setup দেখতে পাই।

এই ক্যামেরায় আমরা 100x পর্যন্ত zoom দেখতে পাই, অবশ্যই 100x হলো digital zoom, কিন্তু 10x বা 20x পর্যন্ত Zoom আমাদের খুব কাজে দেবে যখন আমাদের দূরের কোনো বস্তুর photo তুলতে হবে। এমনকি আমরা চাইলে 3x zoom এ প্রট্রেট ফটো তুলতে পারবো, যেগুলো দেখতে খুব আকর্ষণীয় দেখায়।

Main camera দিয়ে তোলা ফটো গুলোয় colour gradient এবং dynamic range খুব ভালো, কিন্তু low light এ photo গুলো একটু noisy হয়ে যায়। iQOO 12 এ আমরা তিনটি option দেখতে পাই prcoessing এর জন্য vivid , texture এবং natural।

এই ফোনে আমরা তিনটি লেন্স এই macro-option পেয়ে যাই। যা আমাদের আরো ভালো depth দেয় macro photos এ। Main ক্যামেরার সাথে আমরা Dual LED flash ও পেয়ে যাই। কিন্তু এই ফোনের ক্যামেরা খুব বেশি আলো background এ থাকলে তা handle করতে পারেনা। আমরা এই ক্যামেরায় maximum 8k 30fps video quality অপশন পাই, এর সাথে সাথে আমরা 4k 60fps option ও আছে যার সাথে আমরা OIS এর জন্য video stabilization ও পেয়ে যাবো ।

এই ফোনে আমরা 16MP এর front camera দেখতে পাবো, এই ক্যামেরার সাহায্যে আমরা 1080p/ 30fps ভিডিও shoot করতে পারবো। কিন্তু এই price range এ আমরা 4k এর option তো expect করতেই পারি। এই ক্যামেরায় তোলা ফটো গুলো decent হলেও low light এ এই ক্যামেরার performance খুবই হতাশজনক।

এই ক্যামেরার upgrade গুলো এই ফোনকে একটি all rounder smartphone বানিয়ে তোলে। কিন্ত এই ফোনের image processing আরেকটু ভালো হলে আরো ভালো হতো।

But এটা বলা যেতে পারে যে এই ফোনটি হলো iQOO থেকে launch করা best camera phone

PROCESSOR: যেরকম আমরা সবাই জানি এই ফোন হলো ভারতে launch হওয়া প্রথম ফোন যেতে 8 Gen 3 processor আছে । এর সাথে সাথে আমরা LPDDR5x এর RAM পাই, UFS 4.0 এর storage ও পেয়ে যাই।

এই ফোনে আমরা deidcated graphics chip দেখতে পাই যার নাম হলো “Supercomputing Q1 chip”। IQOO এর কথা অনুযায়ী, iQOO 12 এ আমরা সবথেকে বড় cooling chamber যেটায় 6k vapor cooling chamber আছে

এই ফোনের AnTuTu score হলো 2 মিলিয়নের থেকেও বেশি, যা আগের version এর থেকে 43 percent বেশি। আমরা চাইলেই এই ফোনে heavy graphics games যেমন Genshin Impact, COD Mobile, BGMI এসব খুব সহজেই খেলতে পারবো। খেলার সময় সেরকম heating এর সমস্যা হবেনা। আমরা এই processor এর সমন্ধে একটু heating সমস্যা শুনলেও এই ফোনে আমরা সেই সমস্যা দেখতে পাইনি।

BGMI তে আমরা smooth graphics এ 90fps frame rate পাবো এবং HD graphics এ 60 fps পাবো, এমনকি COD mobile এ আমরা 120 fps পেয়ে যাবো। এই ফোনে আমরা সবরকম Gaming Mode options পেয়ে যাবো যেমন eSports mode, voice changer, motion control এসব এবং Game interpolation আমাদের BGMI, Genshin Impact এর মত game গুলোয় 144hz মত screen refresh rate দেবে।

iQOO 12 PRICE:-

এই হলো iQOO 12 এর সব features। যার starting price হলো 55,000 টাকা। কিন্তু bank offers add করলে আমরা এই ফোন 50,000 টাকায় পেয়ে যাবো Amazon এ। এটি খুবই আশ্চর্যজনক , কারণ এটা মাথায় রাখতে হবে যে আমরা এই ফোনে ভালো ক্যামেরা পাচ্ছি, fastest snapdragon chip পাচ্ছি, top-notch display পাচ্ছি, 120W এর charging ও পাচ্ছি। যেখানে এসব features পেতে হলে আমাদের প্রায় 70,000 টাকা মত খরচ করতে হয়

 

এই ফোনের honest review দেখার জন্য আমাদের channel Halka Tech কে subscribe করুন এবং এরকম smartphone এর review পাওয়ার জন্য আমাদের website কে follow করে রাখুন।